নববুধুর গোপন অঙ্গ বড় হওয়ার বিয়ের পরের দিন এই তালাক দিলো পুলিশ

নববুধুর গোপন অঙ্গ বড় হওয়ার বিয়ের পরের দিন এই তালাক দিলো পুলিশ
নববুধুর গোপন অঙ্গ বড় হওয়ার বিয়ের পরের দিন এই তালাক দিলো পুলিশ

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ায় ধর্ষণ ও পর্ণোগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলায় ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

থানার ওসি মো. গোলাম ছরোয়ার ধর্ষিতা ছাত্রীর এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, উপজেলার দক্ষিণ বড়মগড়া গ্রামের রমেশ মধুর ছেলে রণজিৎ মধু (২৭) ঐ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন ভাবে বিরক্ত করতো। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীর সাথে দুই বছর আগে রনজিতের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের সম্পর্কের সুযোগে বিয়ের প্রলোভনে ওই ছাত্রীকে ২০১৯ সালের ২৮ মার্চ তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে রণজিৎ।

এরপর বিয়ের প্রলোভনে রণজিৎ গত দুই বছর যাবৎ তাকে ধর্ষণ করে আসছে। এই সময়ের মধ্যে তাদের দু’জনের নগ্ন আলোকচিত্র ও ভিডিও নিজের মোবাইল ফোনে ধারণ করে রাখে রণজিৎ।

এরই মধ্যে রণজিৎ মধু অন্যত্র বিয়ে করায় ওই ছাত্রী রনজিতের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে না চাইলে তাদের দু’জনের ধারণ করা অশ্লীল ভিডিও এবং নগ্ন আলোকচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে ভাইরাল করার হুমকি দিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ কাজে বাধ্য করে আসছিলো সেই বখাটে। বিষয়টি ওই ছাত্রী রনজিতের অভিভাবকদের জানালে তারা ওই তাকে অন্যত্র বিয়ে করতে বলেন। ছাত্রীর অভিভাবকেরা ভারতে অবস্থানরত সুমন সরকার নামের এক ছেলের সাথে ছাত্রীর বিয়েও ঠিক করেন।এদিকে ওই ছাত্রীর বিয়ে পাকা হবার খবর জানতে পেরে ছাত্রীর ছবি দিয়ে ‘ভোরের পাখি’ নামে ফেইসবুকে একটি ভুয়া আইডি খুলে রনজিত। ওই ভুয়া আইডি’র মাধ্যমে ছাত্রীর বিয়ে ঠিক হওয়া সুমন সরকারকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠায় সে। সুমন সেই রিকোয়েস্ট গ্রহণ না করলেও রনজিত তার ম্যাসেঞ্জারে ওই ছাত্রীর সাথে রনজিতের পূর্বে ধারণ করা অশ্লীল ভিডিও এবং আলোকচিত্র সুমনকে পাঠায়। সুমন সেই আইডির পাঠানো ভিডিও এবং অশ্লীল ছবি ওই ছাত্রীকে প্রেরণ করলে বিষয়টি ওই ছাত্রী জানতে পারেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *